December 1, 2023, 11:01 pm

নোটিশ:
নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন
সংবাদ শিরোনাম:
তেতুলিয়ায় নিখোঁজের, ৫ দিন পর, যুবকের মরদেহ উদ্ধার একাধিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জেরে,পদ্মায় অবৈধ বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে নৌপুলিশ অভিযান, আটক-২ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে না ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (হাতপাখা মার্কা) আজ সন্ধ্যায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হচ্ছে পার্বতীপুরে কৃষকের মাঝে কৃষি উপকরণ বিতরণ বিএনপির আরও ১০ নেতাকর্মী আটক যুবদল নেতার বাড়িতে হামলা मेला लखदाता सरकार, काकी गांव रामा मंडी, जालंधर, बूटा राम ਮੇਲਾ ਲੱਖ ਦਾਤਾ ਸਰਕਾਰ ਦਾ, ਕਾਕੀ ਪਿੰਡ ਰਾਮਾ ਮੰਡੀ, ਜਲੰਧਰ ਬੂਟਾ ਰਾਮ পটুয়াখালী ৪ আসনে আ’লীগের মনোনয়নে আশাবাদী দুই ডজন হেবিওয়েট প্রার্থীরা মতলব উত্তরে অটোরিকশার ধাক্কায় স্কুলছাএী নিহত

এ চিত্র প্রায় প্রতিটি ভুমি অফিসের…! কুষ্টিয়ার হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস যেনো দুর্নীতির আঁতুড়ঘর

মোঃরুমন হোসেন
দৌলতপুর প্রতিনিধি,কুষ্টিয়া:

দুর্নীতির আতুড়ঘর বানিয়েছে ভূমি কর্মকর্তা শাজাহান আলী কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন যখন কুষ্টিয়া জেলাকে দুর্নীতি ও ঘুষ মুক্ত করার জন্য অবিরাম সংগ্রাম করে চলেছেন তখনি কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে দুর্নীতির আতুড়ঘর বানিয়েছে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা এস এম শাজাহান আলী। ভূমি অফিসে কাজ নিয়ে গেলেই তাদের কাছে টাকা দাবী করেন শাজাহান আলী। এ বিষয়ে কয়েকজন ভুক্তভোগী অভিযোগ জানিয়েছেন। জানা যায়, গত ২৫ জানুয়ারী ২০২১ তারিখে আব্দুর রাজ্জাক নামের এক ব্যক্তি জমির নাম খারিজের রিপোর্ট নিতে গেলে তার কাছে ১০ হাজার টাকা দাবী করেন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা এস এম শাজাহান আলী। কেন এত টাকা দিতে হবে আব্দুর রাজ্জাক এমন প্রশ্ন করলে শাজাহান আলী বলেন, জমির কাজ করতে আসলে টাকা দিতে হয়। টাকা ছাড়া কাজ হয় না। টাকা দেওয়া হলে সরকারি কোন রশিদ প্রদান করা হবে কিনা জানতে চাইলে শাজাহান আলী বলেন এই টাকার কোন রশিদ দেওয়া হয় না। এটা আনঅফিসিয়ালী। এ নিয়ে শাজাহান আলীর সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি এ বিষয়ে কোন কথা বলতে চাই না। এছাড়াও মুকুল নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে জমি সংক্রান্ত কাগজাদির ঝামেলা শেষ করতে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছেন বলেও জানা গেছে। এরকম একাধিক ভুক্তভোগীর কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন বলে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা এস এম শাজাহান আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। গতকাল ২৭ জানুয়ারী ২০২১ তারিখে হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে সরেজমিনে যায় । তার এসমস্ত দূর্নীতির বিষয়ে জানতে চাইলে শাজাহান আলী কোন সদোত্তর দিতে পারেনি। বরং সাংবাদিকদের ম্যানেজ করার চেষ্টা করেন তিনি। এসময় যে ভুক্তভোগীর কাছে টাকা চাওয়া হয় তিনিও উপস্থিত ছিলেন। ওই ভুক্তভোগী যখন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন সেসময় ভূমি কর্মকর্তা শাজাহান আলী কোন উত্তর দিতে না পেরে মাথা নিচু করে চুপ করে বসে থাকেন। হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা শাজাহান আলীর এসমস্ত দুর্নীতি সহযোগিতা করেন পল্টু ও টাইগার নামের দুই ব্যক্তি। এই দুই ব্যক্তি বিভিন্ন জনকে সাথে করেন নিয়ে আসেন এবং তাদের কাজ সমাধান করতে টাকা দাবী করেন।

এ বিষয়ে হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সম্পা মাহমুদ বলেন, আমিও শুনেছি ওখানে দুর্নীতি করা হয়। ওই সহকারী ভূমি কর্মকর্তা টাকা ছাড়া কোন কাজ করে না এবং সাধারণ মানুষকে হয়রানি করেন। আমি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলবো এবং উনার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি করছি। কুষ্টিয়া সদর উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা বলেন, আমার কাছে লিখিত অভিযোগ দিলে আমি ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। এ বিষয়ে এলাকাবাসী জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All Rights Reserved sokolerbarta.com